বিশেষ প্রতিনিধি, নোয়াখালী:

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাত ও অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগ উঠেছে।

 

জানা গেছে, তিনি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বরাদ্দকৃত ক্ষুদ্র মেরামত থেকে ৩,০০০/৫,০০০ টাকা (দিতে না চাইলে শোকজের হুমকি), সাব-ক্লাস্টার প্রশিক্ষণের জন্য বরাদ্দকৃত টাকা বিগত জুন মাসে উত্তোলন করে আগস্ট মাসের শেষ দিকে ২/৩টি সাব-ক্লাস্টার একসাথে এক ভেন্যুতে করে শিক্ষকদের সাথে প্রহসন করেন এবং টাকা কম প্রদান করেন। তিনি ই-প্রাইমারী শুমারীর ফরম পূরণ বাবত অবৈধভাবে ৫০০/- টাকা করে আদায় করেন।

 

এছাড়াও শিক্ষকদের সাথে দুর্ব্যবহার, শিক্ষকদের নিয়ে বিভিন্নভাবে গ্রুপিং-লবিং সহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত আছেন বলে তার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ রয়েছে।

 

তার বিরুদ্ধে উপরোক্ত অভিযোগসমূহ উল্লেখপূর্বক তাকে অপসারণ/ক্লাস্টার পরিবর্তনের জন্য গত ২৫/০৮/২০১৯ তারিখে সংশ্লিষ্ট ক্লাস্টারের প্রাথমিক শিক্ষকরা বেগমগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর আবেদনও করেন(যার কপি সংযুক্ত রয়েছে)। নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলার  চন্দ্রগঞ্জ ক্লাস্টারের কিছু শিক্ষকের সাথে আলাপ করেও ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়।

এ প্রতিবেদন তৈরির সময় অভিযু্ক্ত সহকারী শিক্ষা অফিসারের মুঠো ফোন বন্ধ পাওয়ায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।