গাজীপুর প্রতিনিধিঃ
বিষয়টি অনেকটা নাটকী মনে হলেও বাস্তবে এমন ঘটনা ঘটেছে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর পৌর এলাকার লোহাগাছ গ্রামে।  বয়স আশির কোটা পেরিয়ে যাওয়া আমীর আলী পঁচু এক সময় কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।  বয়সের কারণে এখন আর কোন কাজ করতে পারেন না।
এক ছেলে ও মেয়ে থাকলেও কেউ তার কোনো খোঁজ খবর নেয় না।  তাই অনেকটা অভিমানেই নিজের বাড়ির আঙিনায় কবর খুঁড়েছেন আমীর আলী।  শুধু তাই নয় কবরের পাশকে তিনি সিমেন্ট দিয়ে ভালো করে প্লাস্টারও করেছেন।  অপেক্ষা এখন মৃত্যুর।
যদিও আমীর আলীর ভাষ্য, জীবনে অনেক কষ্ট করে জীবিকা নির্বাহ করেছি, এখন আর শরীরে পরিশ্রম মানে না।  এক ছেলে ও মেয়ে থাকার পরও বৃদ্ধ বয়সে সন্তানরাও কোন খোঁজ খবর নেয় না।  মৃত্যুর পর তার কবর হবে কিনা তারও কোন ভরসাও নেই এমন বিশ্বাসেই বাড়ির আঙিনায় তিনি কবর খুড়ে পাঁকা করেছেন।  এ ছাড়াও তিনি কাটাখালির মোজাদ্দেদীয়া দরবার শরীফের একজন মুরিদ।  পীর সাহেবও তাকে কবর খোড়ার পরামর্শ দিয়েছেন।  আর মৃত্যুর কথা বেশী স্মরণ করার জন্য বলেছেন, তাই জীবনের শেষ দিনগুলি তিনি কবরের পাশেই কাটাতে চান।
তবে শ্রীপুর পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুস সাহিদের মতে, এমন কর্মকাণ্ড ভ্রান্ত ধারণা হতে হতে পারে।  ইসলাম ধর্মের অনুসারীদের এমন কাজ হতে বিরত থাকা উচিৎ।