অবৈধ বাংলাদেশিরা ভারতীয় নাগরিক হচ্ছে: মোদি সরকার

 

বিজে২৪নিউজ:

 

ভারত সরকার অভিযোগ করে বলেছে, বাংলাদেশ থেকে আসা অবৈধ অভিবাসীরা ভুয়া নথি দিয়ে আসামের নাগরিকত্ব নিয়েছে। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে মোদি সরকারের পক্ষ থেকে এমন সন্দেহ প্রকাশ করা হয়।

এদিন সুপ্রিম কোর্টে আসামের নাগরিক তালিকা তৈরির সময়সীমা বাড়ানোর আবেদনও জানিয়েছে সরকার। চলতি মাসের ৩১ তারিখ নাগরিক নিবন্ধন তালিকার চূড়ান্ত খসড়া প্রকাশের দিন নির্ধারিত হয়েছে। তবে ওই সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই।

 

বিজেপির এই মন্ত্রী তখনই জানিয়েছিলেন যে, নির্ভুল তালিকা তৈরি করতে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের সময়সীমা বাড়ানোর জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানানো হবে। গতকাল শুক্রবার সরকারের পক্ষ থেকে সে আবেদন জানানো হয়।সরকারি আইনজীবী তুষার মেহতা বলেন, খসড়া তালিকায় রয়েছেন এবং বাদ পড়েছেন এমন অনেক নাগরিকের তথ্য-প্রমাণ নমুনা হিসেবে নিয়ে যাচাই করা হয়েছে। তাতে দেখা গেছে, বহু প্রকৃত নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন।

 

আবার পর্যাপ্ত নথি নেই এমন অনেকেও তালিকায় ঢুকে পড়েছেন। ভারত বিশ্বে শরণার্থীদের রাজধানী হতে পারে না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

 

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর মাঝরাতে আসাম এনআরসি-র (নাগরিক নিবন্ধন) প্রাথমিক তালিকা প্রকাশিত হয়েছিল। ওই তালিকায় আবেদনকারী ৩ কোটি ২৯ লাখের মধ্যে বাদ পড়েছিল এক কোটি ৯০ লাখ ব্যক্তির নাম।