প্রথমবারের মত অবৈধভাবে ভারত থেকে আমদানিকৃত ২০০ কেজি ভায়গ্রা চালান আটক করেছে বেনাপোল কাস্টম হাউজ 

 

বিজে২৪নিউজ:

 

প্রথমবারের মত অবৈধভাবে ভারত থেকে আমদানিকৃত ২০০ কেজি ভায়গ্রা চালান আটক করেছে বেনাপোল কাস্টম হাউজ । বুধবার এক প্রেসব্রিফিং এর মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে ।

 

বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে বেনাপোল কাস্টম ক্লাব এ অনুষ্ঠিত এই প্রেসব্রিফিং এর নেতৃত্ব দেন বেনাপোল এর চৌকস কাস্টম কমিশনার বেলাল  হোসাইন চৌধুরী । উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে কমিশনার বলেন , চালান টি ধরা পড়ার কিছু দিন আগে অসাধু একটি চক্রের অবাধে আমদানিযোগ্য পন্যের আড়ালে অপঘোষনার মাধ্যমে ভারত থেকে বেনাপোল  বন্দরে ভায়াগ্রা আসবে এমন একটি গোপন সংবাদ আমার কাছে এসে পৌঁছে । সে আলোকে সন্দেহজনক কতিপয় পন্য চালান এ দপ্তরের সতর্ক নজর দারীতে রাখা হয় । এ সন্দেহের তালিকার শীর্ষে ছিল “ফ্লেভার “ ঘোষনার আমদানিকৃত একটি পন্য চালানটি’র বিবরনীতে দেখা যায় ।

 

আমদানিকারক –রেড গ্রীন ইন্টারন্যাশনাল ,১৫৩/৩ কাঁঠাল বাগান , ক্রিসেন্ট রোড, কলা বাগান ,ঢাকা -১২০৫ (বিন নং:০০১৪৮৬৪৩৭)। এলসি নং- ২৯৬৬১৯০১০০৩৬,তারিখ :০২/০৪/ ২০১৯ খ্রি । মেনিফেস্ট নং -১৩৬১৩ বি –বি , তারিখ: ১০/০৪/২০১৯ খ্রি। বিল অব এন্টি নং- সি- ২৫৫৭৭,তারিখ :১৩/০৪/২০১৯ খ্রি। ঘোষিত পন্য –ফ্লেভার -৫০০ কেজি), সাদা পাউডার (২০০ কেজি) ,সিরিন্জ ১,৯৪,০০০পিস ), ইমিটেশন জুয়েলারি (১১০.৭৭ কেজি) । শাড়ি (৩০৩ পিস ), ওড়না (১৪ পিস ) , কামিজ (১০ পিস ),সালোয়ার (০৯ পিস ),থ্রী-পিস (৩৮ পিস ), শাট (১৯ পিস ), প্যান্ট (১২২ পিস )।

দশটি অপঘোষিত পন্য পাওয়া গেলেও এটিকে স্বাভাবিক আমদানিযোগ্য পন্যের চালানই মনে হয়েছে । মূলত, বৈধ পন্যের আড়ালে আমদানিযোগ্য পন্য অপঘোষনা দিয়ে অপঘোষণার জরিমানা ও শুল্ককর এর দোহাই দিয়ে কাস্টমস কর্মকতাদের বোকা বানিয়ে পাউডার ভায়াগ্রা পাচারের অপচেষ্টা করে ।

 

পরীক্ষা প্রতিবেদন পাওয়ার পর গোপন সংবাদদাতা রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য তাগিদ দেন । তোলা হয় “ফ্লেভার” ও পাাউডার জাতীয় পন্যের প্রতিনিধিত্বশীল নমুনা । অধিক সতর্কতার জন্য কাস্টম হাউজের নিজস্ব অত্যাধুনিক ল্যাবে রমন স্পেক্টোমিটার ও অন্যান যন্তপাতি ব্যবহার করা হয় ।

 

সতর্ক পরীক্ষা শেষে ফ্লেভার সঠিক পাওয়া গেলে ও ২০০ কেজি পাউডার পরীক্ষায় ভায়াগ্রার উপাদান আছে বলে সহকারী রাসায়নিক পরীক্ষক আকস্মিক দাবী করেন । একাধিকবার পরীক্ষা করেও একই ফলাফল পেয়ে রিপোর্ট দেন । প্রদত্ত  সেই রমন স্পেক্টোমিটারের পরীক্ষায় ঠেকে যায় ভারত থেকে খাবারের ফ্লেভারের  আড়ালে আমাদানিকৃত আলোচ্য পাউডার ভায়াগ্রা ।

চালানটির আমদানিকারক ও খালাসের কাজে নিয়োজিত সিএন্ডএফ এজেন্ট আহাদ এন্টারপ্রাইজ কোন সদুত্তর দিতে পারেনি । ফলে সাময়িক ভাবে সিএন্ডএফ এজেন্ট লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে ।