নগর প্রতিবেদক:

রাজধানীর বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে সন্ত্রাসীদের নৃশংস ও বর্বর পিটুনীতে নিহত লক্ষ্মীপুরের গৃহবধু  তসলিমা বেগম রেনু’র হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার এবং কুচক্রী মহল কর্তৃক দেশব্যাপি গুজব ছড়ানোর প্রতিবাদে শুক্রবার সকাল ১০ টায় ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বৃহত্তর নোয়াখালীবাসীদের এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

 

নোয়াখালী বিভাগ আন্দোলনের যুগ্ম-আহবায়ক ও মানববন্ধন বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক এবিএম জিল্লুর রহমানের সার্বিক নির্দেশনায় এবং রোটারিয়ান রফিকুল হায়দার চৌধুরীর সভাপতিত্বে উক্ত মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাবেক সম্পাদক হারুনুর রশিদ। বক্তব্য রাখেন নোয়াখালী বিভাগ আন্দোলনের আহবায়ক মোহাম্মদ ঈমাম হোসেন,  যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শামসুল ইসলাম পাটোয়ারী, মানববন্ধন বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব বেলায়েত হোসেন বেলাল, রেনু হত্যার মামলার বাদী ও নিহত রেনুর বোনের ছেলে সৈয়দ নাসির উদ্দীন টিটু  প্রমুখ।

 

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী বিভাগ আন্দোলনের যুগ্ম-আহবায়ক  ও নোয়াখালী জেলা সমিতির সদস্য আনোয়ার হোসেন শিমুল, হারুনের রশীদ, এডভোকেট মিজানুর রহমান মুন্সী, আবদুর রব সিদ্দিকী, মিরাজ মুক্তাদির, বাহার ভাই, মোরশেদ আলম, শেখ শিপন,দেলোয়ার হোসেন, হিরা চৌধুরী, মোহাম্মদ ইউনুস, এডভোকেট সুমন মনির, রাজিব, জালাল রুমি, সাবের হোসেন, এমরান হোসেনসহ অনেককেই।

 

প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে রাজধানীতে বসবাসরত ”নিরাপদ নোয়াখালী চাই” সংগঠনের সদস্য বৃন্দ ও লক্ষ্মীপুর, রায়পুরবাসীসহ বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে বৃহত্তর নোয়াখালীর বিপুল সংখ্যক সচেতন মানুষ স্বতস্ফুর্ত মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করে।  মানববন্ধনে নিহত তসলিমা বেগম রেনুর দুই শিশু সন্তানও উপস্থিত ছিলেন।

 

মানববন্ধনে সরকারের নিকট দাবী :

(১) তসলিমা বেগম রেনুর হত্যাকারী যারা এখনো গ্রেফতার হয়নি, তাদের অবিলম্বে গ্রেফতার এবং দ্রুত বিচার আইনে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করছি।

(২) আমরা মনে করি এক শ্রেণীর কুচক্রিমহল কর্তৃক সারাদেশে ছেলেধরা গুজব রটানোর নির্মম শিকার হয়েছে তসলিমা বেগম রেনূ, অবিলম্বে এই কুচক্রি মহল এবং যারা সামাজিক মাধ্যমে এসব প্রচার করেছে, তাদের আইনের আওয়াতায় এনে শাস্তি প্রদান করতে হবে।

(৩) এই ধরনের ঘটনার আর যেনো পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সে জন্যে আইন শৃঙখলা বাহিনীর যথাযথ কার্যকরী পদক্ষেপ আশা করছি।

(৫)ছেলেধরা বিষয়সহ সকল ধরনের গুজবের বিরুদ্ধে স্কুল, কলেজ মাদ্রসা এবং মসজিদে বিশেষ কাউন্সিলিং প্রোগ্রাম বাস্তবায়নে সকল উপজেলা প্রশানকে ব্যবস্থা নিতে সরকারের নির্বাহী আদেশের দাবী জানাচ্ছি। মানববন্ধন আশা করে এই জনবান্ধব সরকার রাষ্ট্র ও জনগনের স্বার্থে আমাদের দাবীর সাথে একাত্মতা পোষন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।