ধর্ষনের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের দাবিতে নিনোচার প্রতিকী চক্ষুলজ্জা মিছিল মানববন্ধন।

নোয়াখালী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে (২৯ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় জেলার সুবর্ণচর ও বেগমগঞ্জ উপজেলায় প্রতিবন্ধীসহ দুই শিশুকে ধর্ষণের প্রতিবাদ ও সর্ব্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের দাবীতে মানববন্ধন করেছে বৃহত্তর নোয়াখালীর সর্ব বৃহৎ সামাজিক সংগঠন নিরাপদ নোয়াখালী চাই ।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ গ্রহণ করে। এসময় মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা ধর্ষণের সর্ব্বোচ্চ শাস্তি মত্যুদন্ডের দাবী জানান।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নিরাপদ নোয়াখালী চাই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুর রহমান রাসেল। তিনি বলেন,সারাদেশে ধর্ষণ মহামারী আকার ধারণ করেছে, এমতাবস্থায়, সরকার ও প্রশাসনকে যৌথ উদ্যোগ না নিলে ধর্ষণের নগরীতে পরিনত হবে সমগ্র দেশ,তাই অনতিবিলম্বে ধর্ষনের সবোর্চ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের বিধান করে তা জনসম্মুখে কার্যকর করে ধর্ষণ নামক এই মহামারী ব্যধিকে শূণ্যের কোটায় নামিয়ে আনা সম্ভব,

সমাবেশে অনান্য বক্তারা বলেন, শিশুদের ওপর নির্যাতনের মাত্রাও বেড়েছে। নিজ নিজ অবস্থান থেকে শিশুদের প্রতি নির্যাতন এবং ধর্ষণের মতো ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদ হওয়া দরকার। এভাবে সাধারণের মধ্যে থেকে প্রতিবাদ শুরু হলে অপরাধীরা ভয় পেয়ে যাবে।

এই সময় প্রতিবাদ সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন নিরাপদ নোয়াখালী চাই বেগমগঞ্জ উপজেলা শাখার প্রধান সমন্বয়ক এ.আর টিটু, নোয়াখালী পেজের মিজানুর রহমান, মুনিম ফয়সাল, আবদুল্লাহ আল মাসউদ, নিরাপদ নোয়াখালী চাই নোয়াখালী সরকারী কলেজ শাখার সভানেত্রী ফাহিদা রিপু, সাধারণ সম্পাদক তানভির, তানজুম রাখি,ফাহাদ,জুয়েল,হাছান, লোকমান, এশা মনি প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালীর বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক অঙ্গনের নেতাকর্মীরা।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে একটি প্রতীকী চক্ষুলজ্জা মিছিল জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে টাউন হলের মোড় প্রদক্ষিণ করে আবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়।