নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আমান উল্যাহ্ পুর বাজারে ছাত্রলীগের ওপর শিবিরের হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় একজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৫ জন আহত হয়েছে। আজ রোববার রাত ৮ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

আহতরা হচ্ছেন, গুলিবিদ্ধ হাবিব, রনি, মনু, রায়হান, রাকিব। এর মধ্যে রাকিবের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

হাসপাতালে আহতরা জানান, রাতে স্থানীয় একটি চায়ের দোকানে আড্ডা দিচ্ছিলেন তারা। হঠাৎ ৮টার দিকে শিবিরের কয়েকজন এসে এলোপাতাড়ি গুলি করে। আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে স্থানীয়রা দিকবিদিক ছুটোছুটি করে। এর মধ্যে শিবিরের কয়েকজন দোকানে ঢুকে কুপিয়ে আহত করে ছাত্রলীগের কর্মীদের। পরে হামলাকারীরা চলে গেলে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান।

বেগমগঞ্জ থানার ওসি হারুন অর রশিদ চৌধুরী বিবিসি জার্নাল ২৪ডটকমকে বলেন, শিবির ও ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পাঁচজন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টাও চলছে। 

অপরদিকে নোয়াখালী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. আরমান হোসেনের সাথে কথা হয় বিবিসি জার্নাল ২৪ডটকমের তিনি বলেন, আমার প্রিয় ছাত্রলীগ কর্মীদের মারাত্মকভাবে আহত করা হয়েছে, আমি এই ঘটনায় দায়ী শিবিরকর্মীদের দ্রুত গ্রেফতারের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

নোয়াখালী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতির এফবি ওয়াল থেকে