বিজয়ের প্রথম প্রহরে শহীদ বেদিতে নিরাপদ নোয়াখালী চাই সংগঠনের শ্রদ্ধা নিবেদন।

 

বিজে২৪ডটকম:

ঘড়ির কাঁটা রাত ১২টা ১ মিনিটে স্থির। শুরু হলো রক্তক্ষয়ী বিজয়ের প্রথম প্রহর। স্বাধীন দেশ হিসেবে প্রিয় জন্মভূমি পা রাখলো ৪৯ বছরে। যাদের রক্ত আর সম্ভ্রমের বিনিময়ে মহান এই বিজয় তাদেরকেই বিজয়ের শ্রদ্ধা জানাতে জেলার স্মৃতি সৌধে ছুটে এলেন বৃহত্তর নোয়াখালীর জনপ্রিয় সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “নিরাপদ নোয়াখালী চাই” এর একঝাঁক মানবিক সদস্যরা।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাইফুর রহমান রাসেলের নেতৃত্বে দেশের জন্য জীবন উৎসর্গকারী শহীদদের প্রতি ফুলেল শুভেচ্ছা ও শ্রদ্ধা জানান তারা। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে তাঁরা মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে জীবনদানকারী বীর শহীদদের স্মরণে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন এবং মহান রবের প্রতি শহীদদের জন্য দোয়া করেন।

পুষ্পমাল্য ও শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান রাসেল বলেন,

বাঙালির হাজার বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে গৌরব ও অহংকারের দিন আজ। লাখো লাখো বীর মুক্তিযোদ্ধার রক্তস্রোত, স্বামী-সন্তানহারা নারীর অশ্রুধারা, দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান বুদ্ধিজীবীদের হত্যা আর বীরাঙ্গনাদের সীমাহীন ত্যাগের বিনিময়ে ৯ মাসের যুদ্ধ শেষে অর্জিত হয়েছিল মহান এই বিজয়। ৪৯ বছর আগে এই দিনে বিশ্বের মানচিত্রে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের অভ্যুদয় বাঙালি জাতিকে এনে দিয়েছিল আত্মপরিচয়ের ঠিকানা। আজ কৃতজ্ঞ জাতি সশ্রদ্ধ বেদনায় স্মরণ করছে দেশের বীর সন্তানদের। আমরা সকল বীর শহীদরে আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নিরাপদ নোয়াখালী চাই সংগঠনের কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য সচিব আবদুর রাজ্জাক মুরাদ, সদর উপজেলা শাখার আহব্বায়ক মোঃ রাকিবুল ইসলাম, যুগ্ম আহব্বায়ক রেবেকো নিপু, শ্রাবন্তী ইসলাম এশা, মোঃ মামুন হাসান, সালমা হক রিয়া, মোঃ জিহাদ রহমান, মোশারফ রাকিব, গালিব মাহমুদ, সুবর্ণচর শাখার আহব্বায়ক ওমর ফারুক সুমন, সংগঠনের নোবিপ্রবি শাখার ইয়াসিন হামিদ,মোশারফ হোসাইন, বেগমগঞ্জ শাখার সিনবাদ শাকিল, রাব্বি, সুমন প্রমূখ, ।