খাওয়ার পরে অলসতা লাগেই। মনে হয়, একটুখানি গড়াগড়ি করে নিতে পারলে বা ভাতঘুম দিতে পারলে বেশ হতো! আবার খাওয়ার পরপরই এককাপ চা না হলে ভালোলাগে না। এই অভ্যাসগুলিই ধীরে ধীরে হয়ে উঠতে পারে আপনার বিপদের কারণ। চলুন জেনে নেই খাওয়ার পরে কোন কাজগুলো করবেন না-

ঘুম

খাওয়ার পরপরই ঘুমের অভ্যাস রয়েছে অনেকেরই। এটি একেবারেই অনুচিত। কারণ এতে হজমপ্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। পাশাপাশি নাক ডাকা, স্থুলতার মতো সমস্যাও দেখা দিতে পারে। এরচেয়ে বরং হালকা হাঁটাহাঁটি করুন।

গোসল

হজমের জন্য আমাদের শরীরে প্রচুর শক্তি ক্ষয় হয়। এই পুরো প্রক্রিয়াটার জন্য পাকস্থলীতে প্রচুর পরিমাণ রক্তচলাচলের প্রয়োজন হয়। ফলে খাওয়ার পরে শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা বেড়ে যায়। কিন্তু গোসল করলে শরীরের তাপমাত্রায় তারতম্য হয় এবং পুরো প্রক্রিয়ায় ভারসাম্য রাখতে গিয়ে হজমপ্রক্রিয়ায় ব্যঘাত ঘটে।

ফল খাওয়া

খাওয়ার শেষে ফল খাওয়ার অভ্যাস থাকলে তা আজই বাদ দিন। কারণ ফল হজম হতে খুব বেশি সময় নেয় না। কিন্তু অন্যান্য খাবারের সঙ্গে ফলও খেলে হজমের জন্য অনেক বেশি সময় লাগে। ততক্ষণে ফল তার পুষ্টিগুণ হারিয়ে ফেলে। তখন উপকারের বদলে অপকারই বেশি হয়।

ঠান্ডা বা গরম কিছু খাওয়া

খাবার পরে বেশি গরম পানীয় বা অনেক ঠান্ডা পানীয় কোনভাবেই পান করা উচিত নয়। এতে হজমের সমস্যা হয়, পাকিস্থলিতে গণ্ডগোল হতে পারে। আমরা জানি আমাদের হজমের মূলে রয়েছে হাইড্রোক্লোরিক এসিড(HCL) আমরা যদি লাঞ্চ বা ডিনারের পরে অধিক গরম বা ঠান্ডা জাতীয় কিছু খাই তবে উক্ত এসিড স্বাভাবিকভাবে নিঃসরণ হতে পারে না। আর সেই কারণে খাবার হজমে সমস্যা হয়। দীর্ঘদিন এই অনিয়ম চলতে থাকলে শরীরে মারাত্মক সমস্যা হতে পারে।