টপ লাইন : মুলত জাতীয় নির্বাচনের  মনোনয়ন নিয়েই দুগ্রুপের দীর্ঘদিনের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ হল আজ চৌমুহনীর শহীদ মিনার প্রঙ্গনে। দেশী বিদেশী অস্ত্রের ঝনঝনানী, মুখোমুখি দুগ্রুপ ককটেল বিস্ফোরণ ও গোলাগুলি, পুলিশের টিয়ার সেল ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ রনক্ষেএ চৌমুহনীর পাবলিক হল ও রেল গেইট।

 

 

বিজে ২৪ নোয়াখালী এক্সক্লুসিভ  :

আজ বিকাল ৩টায় চৌমুহনী পাবলিক হল বেগমগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্ত্বরে বেগমগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আক্তারুজ্জামান আনছারীর উপর হামলার প্রতিবাদ সমাবেশে সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়।

 

এ সময় তারা সভা মঞ্চ ভাংচুর করে প্রতিবাদ সভা ভুন্ডুল করে দেয় এবং ব্যাপক ভাংচুর ও বোমাবাজি করে। এতে অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়। পুলিশ ও প্রত্যক্ষ দর্শীরা জানান চৌমুহনী পাবলিক হল চত্ত্বরে বেগমগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আওয়ামীলীগের পূর্ব নির্ধারিত প্রতিবাদ সভা চলাকালে আওয়ামীলীগের মেয়র গ্রুপের নেতা-কর্মীরা মঞ্চ দখল করে নোয়াখালী-৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য মামুনুর রশিদ কিরণ-কে তারা মঞ্চ থেকে নেমে যাওয়ার জন্য বলে।

 

মামুনুর রশিদ কিরণ নেমে  গেলেই শুরু হয় সংঘর্ষ।সংঘর্ষে বিপুল সংখ্যক বোমাবাজী ও ফাঁকা গুলিবর্ষণ, দা ,ছেনি, হকস্টিক, রাম দা নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় উভয় গ্রুপের শতাধিক আহত হয়। সকাল থেকে সন্ত্রাসীরা চৌমুহনী পূর্ব বাজার কাচারি বাড়ী মসজিদ সামনে থেকে বোমাবাজি করতে করতে সমাবেশ স্থল (স্টেজে) এসে ব্যাপক ভাংচুর শুরু করে।

 

                      সভা পন্ড করছেন বিরোধীপক্ষ

 

তাঁদেরকে বাঁচাতে গিয়ে আওয়ামীলীগ নেতা বাবুল, মামুন, মাহবুব, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রফিকুল ইসলাম মাছুম, জেলা ছাত্রলীগের সদস্য নাজমুল শিহাব, থানা যুবলীগের সদস্য মামুন, পৌর ছাত্রলীগের সদস্য মোঃ শামীম, অন্তর, সামছুল ইসলাম মারাত্মক ভাবে আহত হন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) সৈকত শাহিন স্থানীয় এম.পি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান-কে পুলিশী কর্ডনে আজিজ প্লাজায় নিয়ে যায়।

 

দীর্ঘক্ষণ অবরুদ্ধের পর পুলিশ পাহারায় তারা মিছিল নিয়ে যাওয়ার পথে রূপসা হলের পথে আবার আক্রমনের শিকার হয়।বিক্ষুদ্ধ ক্যাডাররা চৌমুহনী পোষ্ট অফিস, ইসলামিয়া হাসপাতাল, স্টেশন রোড, ডিবি রোড এবং চৌমুহনী ডালিয়া সুপার মার্কেটের বিভিন্ন দোকানের ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠি চার্জ ও ফাঁকা গুলি করে হামলাকারীদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা চালায়।

 

প্রতিবাদ সভায় জনতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য দিচ্ছেন সংসদ সদস্য মামুনুর রশিদ কিরণ

 

অতিরিক্ত পুলিশ বেগমগঞ্জ চৌরাস্তা, চৌমুহনী করিমপুর রোড, ফেনী রোড এলাকায় রাস্তায় রাস্তায় টহল দিচ্ছে। বৃহত্তর নোয়াখালীর প্রধান বাণিজ্য কেন্দ্র চৌমুহনী শহরের ব্যবসায়ীরা প্রান বাঁচানোর জন্য দোকান পাট বন্ধ করে দিগবিধিক ছুটা ছুটি করে। বেগমগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা বিকাল ৫টায় ছুটি হলে তারাও বিপাকে পড়ে।। উল্লেখ্য, নোয়াখালী-৩ বেগমগঞ্জ আসনে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র পাওয়া নিয়ে দীর্ঘ দিন থেকে দ্বন্দ্ব চলে আসছে।

 

সংসদ সদস্য মামুনুর রশিদ কিরনের প্রতিবাদী অবস্থান, সাংসদের নিরাপত্তায় এডিশনাল এসপি সৈকত শাহীন

 

এরই জের ধরে দেশের অন্যতম বাণিজ্য কেন্দ্র চৌমুহনীতে প্রায় ৪ ঘন্টা ব্যাপী ব্যাপক হামলা সংঘঠিত হয়েছে। এতে বিভিন্ন ক্যাডারদের হাতে দেশী-বিদেশী অনেক আগ্নেয়াস্ত্র দেখা গেছে। এলাকায় থেমে থেমে গুলি ও বোমার আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। ফলে এলাকায় জনমনে আতংক ও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে , ২ গ্রুপ মুখো মুখি অবস্থানে রয়েছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হওয়ার আশংকা রয়েছে।