বিজে২৪ নিউজ :

ডিয়েগো ম্যারাডোনার ঠোঁটকাটা স্বভাবের কথা সবারই জানা। তিনি যখন কাউকে কিছু বলেন, কোনো রাখঢাক ভনিতা করে বলেন না। আর্জেন্টিনা দলের প্রাণভোমরা লিওনেল মেসির বিষয়েও বেশ কঠোর অবস্থানেই দাঁড়াচ্ছেন ছিয়াশির বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক।

সাময়িক অবসরে থাকা বার্সা তারকাকে পুরোপুরি অবসরে চলে যেতে বলছেন তিনি। ক্লাবের মেসি ভীষণ সফল, ততটাই যেন অনুজ্জ্বল জাতীয় দলের জার্সিতে। বেশ কয়েকবার কাছে গিয়েও আর্জেন্টিনাকে একটি বড় শিরোপা জেতাতে পারেননি মেসি। এবারের বিশ্বকাপেও বড় স্বপ্ন নিয়ে পা রেখেছিল তার দল, ফলাফল সেই একই।

বিশ্বকাপের পর তাই স্বেচ্ছা নির্বাসনে গেছেন আর্জেন্টাইন খুদে জাদুকর। এখনও অবসর নেননি, তবে আর তিনি জাতীয় দলে ফিরবেন কি না, নিশ্চিত নয়।এই ব্যর্থতার জন্য অবশ্য মেসিকে দায়ী করছেন না মারাডোনা। তিনি বলেন, ‘বিশ্ব চাম্পিয়ন না হওয়ার জন্য সে দায়ী নয়।

আমাদের সবার তার উপর প্রত্যাশা ছিল। যখন আপনি দৌঁড় প্রতিযোগিতায় যাবেন, তখন তো চাইবেন আপনার ঘোড়াই জিতুক, তারপর দেখবেন সে অষ্টম হয়ে ফিরছে। এখনকার জাতীয় দল আমাকে আর টানে না। একইরকম অবস্থা সমর্থকদেরও। আমরা উদ্যমটা হারিয়েছি।’

দলের এই দুর্দশার মধ্যে মেসির আর জাতীয় দলে ফেরা উচিত নয় বলেই মনে করছেন ম্যারাডোনা। ছিয়াশির নায়ক বলেন, ‘আপনি নিকারাগুয়া আর মাল্টার সঙ্গে খেলতে পারেন না। না, ভাই। আমরা আমাদের সব সম্মান টয়লেটে ফেলে দিয়েছি। আমি চাইব, মেসি যেন আমাদের সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়ে আর আর্জেন্টিনা দলে না ফেরে।’

এদিকে, বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় হোর্হে সাম্পাওলি কোচের দায়িত্ব হারানোর পর ভারপ্রাপ্ত কোচ হিসেবে আর্জেন্টিনা দলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে লিওনেল স্কালোনিকে। এই কোচকেও অপছন্দ ম্যারোডোনার। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপে যা হয়েছে, আমি খুব কষ্ট পেয়েছি। কারণ আমরা শ্রদ্ধা অর্জন করতে পারিনি।

এখন তারা স্কালোনিকে নিয়ে এসেছে। স্কালোনি খুব ভালো মানুষ, কিন্তু সে এই কাজের জন্য নয়। তারা কিভাবে আর্জেন্টিনার জাতীয় দলকে স্কালোনির হাতে তুলে দিল? আপনারা কি পাগল হয়েছেন? স্কালোনিও বললো, আমি প্রস্তুত। কিন্তু আমি তাকে কখনও আর্জেন্টিনার হয়ে একটি গোল করতে দেখিনি।