অনলাইন ডেস্ক :

 

নিরপেক্ষ তদন্ত করলে দুর্নীতিবিরোধী দুর্নীতি দমন কমিশন- দুদকেরও দুর্নীতি বেরিয়ে আসবে। দুদকও দুর্নীতির বাইরে থাকবে না। বললেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।এনবিআরের আয়কর বিভাগে দুর্নীতির উৎস চিহ্নিত করে দুদকের প্রতিবেদনের প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন।

 

১৩ নভেম্বরে দেশব্যাপী আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ উপলক্ষ্যে রোববার আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান এ মন্তব্য করেন।এনবিআরের আয়কর বিভাগের অভ্যন্তরীণ দুর্নীতির ১৩ উৎস এবং এসব ‍দুর্নীতি প্রতিরোধে ২৩টি সুপারিশ করে একটি প্রতিবেদন গত বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব বরাবর জমা দেয় দুদক।

 

এ বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মোশাররফ হোসেন বলেন, আমি এটা (দুদক প্রতিবেদন) এখনও পাইনি। এ ব্যাপারে আমি দুদকের সাথে দ্বিমত পোষণ করি। কারণ হলো, আপনি যদি একেবারে নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করেন তাহলে ‍দুদকের দুর্নীতিও কত ধরনের সেটা বের করতে পারবেন।‘কাজেই সকলেরই দুর্নীতি আছে আমাদের দেশে, এই সংস্কৃতিটা পরিবর্তন করতে হবে। সেটি পরিবর্তনের জন্য আমাদের সামাজিক ব্যবস্থার পরিবর্তন করতে হবে।’

 

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, দুদক যা-ই বলুক, যে রিপোর্টই দিক না কেন ইনকাম ট্যাক্স আইন এবং কাস্টমস আইন অনুযায়ী যদি তাদের অ্যাক্টিভিটিজ আমাদের এখানে অ্যালাও করে তাহলেই শুধু করতে পারবে, আদারওয়াইজ নট।দুর্নীতি আগের চেয়ে কমেছে বলে মন্তব্য করেন মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। তিনি বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানুষের মধ্যে আরও সচেতনতা বাড়ানো দরকার।

 

সরকারের সৎ কর্মকর্তাদের পুরস্কার এবং অসৎ কর্মকর্তাদের তিরস্কার করার ব্যবস্থা রাখতে হবে।রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরে সপ্তাহব্যাপী আয়োজিত এই মেলা চলবে আগামী  ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত।

 

এবারের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘আয়কর প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে সামাজিক ন্যায়বিচার ও ধারাবাহিক উন্নয়ন নিশ্চিতকরণ’।রাজধানীর মেলা হবে মিন্টো রোডের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে। এ ছাড়া সব জেলা শহরে চার দিন এবং ৩২টি উপজেলায় দুই দিন মেলা  হবে। পাশাপাশি ৭০টি উপজেলায় এক দিন ভ্রাম্যমাণ মেলা অনুষ্ঠিত হবে।