আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

 

ইরানে চালু হয়েছে ক্যানসারের ওষুধ তৈরির সর্ববৃহৎ কারখানা। মধ্যপ্রাচ্যে ক্যানসারের ওষুধ তৈরির সবচেয়ে বড় কারখানা এটি। কারখানাটি রাজধানী তেহরানের পশ্চিমাঞ্চলীয় কারাজ শহরে অবস্থিত।

স্থানীয় সময় সোমবার কারখানার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাইয়্যেদ হাসান কাযিযাদেহ হাশেমি উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম পার্স টুডে। এসময় তিনি বলেন, এই কারখানায় উন্নতমানের ওষুধ তৈরি হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে এই ধরনের ওষুধ তৈরির কারখানা উদ্বোধনকে ইরানের জন্য বড় সাফল্য হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানে ক্যানসারের মতো প্রাণঘাতী রোগের ওষুধের ঘাটতি দেখা দিতে পারে বলে যখন আশঙ্কা করা হচ্ছে, ঠিক তখন এই কারখানা চালু হলো।

সম্প্রতি ইরানের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রধান আলী আসগার পেইভান্দি বলেন, নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে খাদ্য ও ওষুধের মতো পণ্যকেও টার্গেট করেছে যুক্তরাষ্ট্র। অর্থাৎ তারা ইরানি জনগণকে কষ্ট দিতে চায়।

তেহরান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, কারখানাটি গড়ে তুলেছে ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি অ্যাক্টোভার। কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহী শাহরজাদ নারাকি বলেন, নতুন এই কারখানায় দুই হাজার ৭০০ লোকের কর্মসংস্থান হবে।

তিনি বলেন, ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ফলে বাইরের দেশ থেকে ওষুধ আমদানিতে সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই এটি জরুরি ছিল। এখানকার ওষুধ দেশের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি অন্য দেশগুলোতে রপ্তানি করা হবে।

ইরানের ‘ফুড ও ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’র মুখপাত্র কিয়ানৌশ জাহানপৌর বলেন, ৯৭ শতাংশ ওষুধ এবং ৬৭ শতাংশ ফার্মাসিউটিক্যাল কাঁচামাল এই দেশে উৎপাদিত হয়।