ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর সীমান্তে দুই বাংলার মিলনমেলায় কানা ও আনন্দের বন্যা।

 

ঠাকুরগাঁও থেকে মোঃ সবুজ ইসলাম :

বিজে২৪ নিউজ:

প্রতি বছরের ন্যায় এবছরেও শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) হরিপুর সীমান্তে বসলো এপার-ওপার দুই বাংলার মিলন মেলা। দেখা যায়, লক্ষাধিক মানুষের মিলন মেলায় যেমনি ছিলো কান্নার রোল তেমনি বয়ে গেছে আনন্দের বন্যা ।স্বজনেরা প্রতি বছরে অপেক্ষা করে এই দিনটিতে নিজ নিজ নিকট আত্বীয়ের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতের জন্য।

 

লাখো লোকের ভিরে অনেকে  নিজ স্বজন কে খুজতে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় পার করেন । ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার কোঁচল ও চাঁপাসর এবং ভারতের নাড়গাঁও এবং মাকারহাট সীমান্তের (বাংলাদেশ- ভারত) দু-দেশের কাটাতারের বেড়ার পাশে হাজারো মানুষের ঢল নামে “পাথরকালী” নামক মেলায় ৷

 

শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টা সময় হতে তারকাটার এপার ওপারের প্রায় ২/৩কিলোমিটার এলাকা জুড়ে দু বাংলার হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে ৷ বর্ষ পঞ্জিকা অনুযায়ী হিন্দু স¤প্রদায় প্রতি বছর শ্রী শ্রী জামর কালির জিউ (পাথর কালী) পূজা উপলক্ষ্যে মেলা উদযাপন করা হয় ৷ আর এ পূজা উপলক্ষ্যে প্রতি বছরের মতো এই দিনে দুর-দুরান্ত থেকে এসে স্বজনদের সাথে দেখা করতে৷

 

দু-দেশের স্বজনরা ভিড় জমায় সীমান্তে ৩৪৫ ও ৩৪৬ নং পিলার এলাকায় ৷তবে দু-দেশের সীমান্তে হাজারো মানুষের উপস্থিতি ছিলো দেখার মতো ৷

 

বিজিবি এবং বিএসএফ এর ছিল কড়া পাহারা ৷ হাজারো মানুষের ঢল  শেষ পর্যন্ত রাখা সম্ভব হয়নি ৷ তবে তার বেড়ার উপর দিয়ে খাদ্য-পণ্য বিনিময় করেছেন অনেকে ৷

 

শ্রী শ্রী জামর কালির জিউ(পাথর কালী)পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি নগেন পাল বলেন,স্থানীয় সরকার প্রশাসন,বিজিবি এবং বিএসএফ এর পক্ষ থেকে সীমান্তে সমবেত হতে বাধা দেওয়া হয়নি বলেই অন্য বছরের তুলনায় এবছর অনেকেই দু-দেশের এপার ওপার একে অন্যার সাথে কথা বলেছেন ৷