সোনারগাঁওয়ে বিয়ের প্রলোভনে তরূনীকে ধর্ষন, প্রেমিক আটক

 

সোনারগাঁও থেকে  শাহাদাত হোসেনের তথ্যচিত্রে একটি ডেস্ক রিপোর্ট:

বিজে২৪নিউজ:

নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও পৌরসভার বিয়ের প্রলোভনে এক তরূনীকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় শনিবার সকালে ওই ধর্ষক অমল চন্দ্র দাস নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

ধর্ষীতা সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা মামলা অভিযোগে করেন, তিনি কুমিল্লা চান্দিনা এলাকার বাসিন্দা। একই জেলার বরূড়া উপজেলার সাহাপুর গ্রামের অনিল চন্দ্র দাসের ছেলে অমল চন্দ্র দাস ওরফে নয়নের সঙ্গে মুঠোফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

 

নয়ন নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ পৌরসভার পানামনগর এলাকায় অবস্থিত বেসরকারী সংস্থা দিশা আলো ঘর নামে একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করেন। সে সুবাধে আলোঘর ছুটির পর রাতে বিয়ের প্রলোভনে তার প্রেমিকাকে তার থাকার কক্ষে ডেকে এনে দীর্ঘ দিন ধরে শারীরিক সর্ম্পক করতে থাকে।

 

পরে তরুনী জানতে পারে তার প্রেমিক হিন্দু সপ্রদায়ের লোক তাই মুসলিম হয়ে তাকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। গত শুক্রবার ছুটির দিন থাকায় আবারো ওই তরুনীকে দিশা আলোঘর তার অফিসে ডেকে এনে শারীরিক সর্ম্পক করার চেষ্টা করে তখন তার প্রেমিককে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়া হলে জোরপূবর্ক ধর্ষনের চেষ্টা করার সময় তার আত্মচিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ধর্ষককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে।

 

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোরশেদ আলম বিবিসি জার্নাল-কে  জানান, এ ঘটনায় ধর্ষিত তরূনী বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।