নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 

নোয়াখালী কবিরহাট উপজেলায় পল্লী বিদ্যুতের টানা তারে ত্রুটি থাকায় কৃষক ছালাহ উদ্দিন ও তার স্কুলপড়ুয়া ছেলে সৌরভ হোসেনের (১২) মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনা ২ লাখ টাকা দিয়ে আপস করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

বুধবার রাতে পল্লী বিদ্যুৎ কর্মকর্তা, ঠিকাদার নিহতের স্বজনদের সঙ্গে কবিরহাট পৌরসভায় সমঝোতা বৈঠক করেন।

উপজেলা নরোত্তমপুর ইউনিয়নে ফলহারি গ্রামে মঙ্গলবার বিকালে ঠিকাদারের অবহেলায় বিদ্যুতের খুঁটি থেকে তার ছিঁড়ে পুকুরে পড়ে পানি বিদ্যুতায়ন হয়ে যায়। কৃষক ছালাহ উদ্দিন বাড়ির পুকুরে গোসল করতে গেলে ঘটনাস্থলে মারা যায়। তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে তার ছেলেও মারা যায়।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে ‘পল্লী বিদ্যুতের অবহেলা ঝরল পিতা-পুত্রের প্রাণ’ এ শিরোনাম প্রকাশিত হলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা ও বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলীসহ সর্বমহলে তোলপাড় শুরু হয়।

পরে বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক প্রধান প্রকৌশলী স্বপন ভৌমিক, জিএম শঙ্করসহ অপর কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। রাতেই ঠিকাদার দেশ প্রকৌশলীর তত্ত্বাবধায়ক, পল্লী বিদ্যুতের জিএম, ডিজিএমসহ অপর কর্মকর্তারা নিহতের স্বজনদের সঙ্গে কবিরহাট পৌরসভায় সমঝোতার বৈঠক করেন।

ওই বৈঠকে ঠিকাদারের অবহেলায় পল্লী বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পানিতে পড়ে বিদ্যুতায়ন হওয়ায় পিতা ও পুত্রের মৃত্যুতে স্বজনদের জনপ্রতি ৩ লাখ করে ৬ লাখ টাকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এদিকে কবিরহাট থানার ওসি মির্জা মোহাম্মদ হাসান জানান, পল্লী বিদ্যুতের ঠিকাদারের অবহেলায় খুঁটি থেকে তার ছিঁড়ে পুকুরে পড়ে পানি বিদ্যুতায়ন হওয়ায় কৃষক ছালাহ উদ্দিন ও তার ছেলের মৃত্যুতে জনপ্রতি ৩ লাখ করে ৬ লাখ টাকা স্বজনদের হাতে দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।