নারীর জুতার ভেতর ৯ হাজার মাইল পাড়ি দিলো সাপ

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

 

ঘটনা অনেকটা স্যামুয়েল এল জ্যাকসনের মুভির সিক্যুয়েলের মতো। তবে ওই ঘটনা রিলে ঘটেছিল আর এটা ঘটেছে রিয়েলে। অস্ট্রেলিয়া থেকে নয় হাজার মাইল পথ পাড়ি দেয়ার পর স্কটিশ এক নারী তার জুতার ভেতর একটি সাপ খুঁজে পেয়েছেন।

 

গত বৃহস্পতিবার ময়রা বোক্সাল নামের ওই নারী অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড থেকে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো ফিরছিলেন। কিন্তু নিজের স্যুটকেসের ভেতর জীবন্ত সাপ দেখে চমকে যান ওই নারী।

 

দীর্ঘ এই ভ্রমণের সময় সাপটি ওই নারীর জুতার ভেতর ঘাপটি মেরে বসে ছিল এবং চামড়া ছাড়াতে শুরু করে।

 

বিমানের মধ্যে সাপ নিয়ে ২০০৬ সালে স্যামুয়েল এল জ্যাকসন অভিনীত একটি মুভি মুক্তি পায়। ‘স্নেকস অন আ প্লেন’ নামের ওই সিনেমায় বিমানের ভেতর বিষধর সাপের সঙ্গে লড়াই করতে দেখা যায় এফবিআই এজেন্ট ভূমিকায় থাকা স্যামুয়েল এল জ্যাকসনকে।

 

তবে সাহায্যের জন্য অস্কারের মনোনয়ন পাওয়া অভিনেতাকে ডাকার প্রয়োজন পড়েনি বোক্সালের। এর পরিবর্তে বক্সাল প্রাণী রক্ষা সংস্থা স্কটিশ এসপিসিএ’কে ফোন দিলে, তারা এসে সাপটিকে নিবৃত্ত করে।

 

 

প্রাণী উদ্ধার কর্মকর্তা টেইলর জনস্টোন সিএনএনকে জানিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়া থেকে ছুটি কাটিয়ে ফেরার পর এক নারীর স্যুটকেসের ভেতর তার জুতার মধ্যে একটি সাপ পাওয়ার ফোনকল পাই।

 

তিনি বলেন, আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি ওই নারী সাপটিকে আটকে রেখেছে, তাই আমি সেটিকে নিরাপদে সরিয়ে নেই। পরীক্ষা করে দেখা গেছে, ওই সাপটি একটি স্পটেড পাইথপ, যা বিষধর নয়।

 

জনস্টোন বলেন, সাপটিকে এখন এডিনবার্গে আমাদের প্রাণী উদ্ধার এবং রি-হোমিং সেন্টারে রয়েছে।

 

এর আগেও সিকিউরিটির চোখ ফাঁকি দিয়ে বিমানে সাপ চড়ে ওঠার ঘটনা ঘটেছে।

 

 

২০১৬ সালে টোরিওন থেকে মেক্সিকো সিটিগামী অ্যারোমেক্সিকোর একটি ফ্লাইটে সাপ ঝুলছে এমন একটি ভিডিও করেন বিমানটির একজন যাত্রী।

 

তারও আগে ২০১২ সালে বিমানে সাপ থাকার কারণে জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হয় ইজিপ্টএয়ার। ওই ফ্লাইটে করে সাপ পাচারকালে পাচারকারী জর্ডানের ব্যক্তিকে সাপ কামড় দিলে বিমানটির জরুরি অবতরণ করানো হয়।